১৩, সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় ২০১৭ সালেও এস,এস,সি পরিক্ষায় চমৎকার ফলাফল করেছে আসিয়া বারি আদর্শ বিদ্যালয়। এবার মোট ৩৯জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে ২৪ জন এ-প্লাস, ৯জন গোল্ডেন এ-প্লাসসহ পাশের হার শতভাগ।

টানা পঞ্চমবারের মতো এসএসসি পরীক্ষায় শতভাগ পাসের কৃতিত্ব দেখালো অত্র বিদ্যালয়। বিদ্যালয়টি থেকে এবার ৩৯ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাই পাস করেছে। এর মধ্যে ২৪ জন পরীক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। শতভাগ পাসের দিক থেকে প্রতিষ্ঠানটি উপজেলায় একমাত্র এবং জেলার মাত্র তিনটি প্রতিষ্ঠানের একটি। এর আগে ২০১৩ সালে এসএসসি পরীক্ষায় প্রথমবারের মতো প্রতিষ্ঠানটি অংশ নিয়েই শতভাগ পাস প্রতিষ্ঠানের কাতারে নাম লেখায়। ওই বছর ১৭ জন পরীক্ষা দিয়ে জিপিএ-৫ সহ ১৭ জনই পাস করে। এরপর থেকেই এসএসসি পরীক্ষায় ধারাবাহিক সাফল্য দেখিয়ে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। ২০১৪ সালে বিদ্যালয়ের ২৮ জন পরীক্ষার্থীর সবাই পাস ছাড়াও মধ্যে ১১ জন জিপিএ-৫ পায়। ২০১৫ সালে ৩২ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে সবাই পাস করে। এর মধ্যে ১৫ জন পরীক্ষার্থী জিপিএ-৫ পায়। এর ধারাবাহিকতায় ২০১৬ সালেও প্রতিষ্ঠানটি থেকে শতভাগ পরীক্ষার্থী কৃতিত্বের সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়। ২৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১৪ জন জিপিএ-৫ পায়। বিদ্যালয়টির এই অসাধারণ কৃতিত্ব শুধু পাকুন্দিয়া উপজেলাতেই নয়, পুরো কিশোরগঞ্জ জেলায় আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। ২০০১ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বিদ্যালয়টি ঈর্ষণীয় ফলাফল দেখিয়ে আসছে। ফলে প্রত্যন্ত গ্রামের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মাঝে মানসম্মত শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে তাদের অদম্য মেধাবী হয়ে উঠতে প্রতিষ্ঠানটি সহায়তা করছে। এতে করে গ্রাম ও শহরের শিক্ষার বৈষম্য দূরীকরণে বিদ্যালয়টি ভূমিকা রাখছে।